ঢাকা ১০:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কবিতাঃ- “মায়ার জগৎ” — পারুল রায়।

রাইসা ইসলাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৮:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৫১৪২ বার পড়া হয়েছে

মায়ার জগৎ 

—পারুল রায়

 

 

একদিন সবকিছু হারিয়ে ফেলার শেষে –

আমি হঠাৎই আবিষ্কার করবো,

পার্থিব কোনো কিছুর প্রতি

আমার আসলে কোনো কালেই কোনো মোহ নেই,

ছিল না আসক্তি।

 

আমার যা কিছু ছিল,

যা কিছু আছে,কিংবা থাকবে,

সবটা শুধু এক মায়ার জগৎ।

যার কোন শুরু নেই, শেষ নেই,

নেই হারানো বা ফুরিয়ে যাওয়ার মতো অন্তিম পরিণতি।

 

হৃৎপিণ্ড বিকল হওয়ার আগে পর্যন্ত যেন

এভাবেই আমি বুঝতে পারি।

আমার সমস্তটা জুড়ে কি আছে সেটাও জানা নেই।

ঠিক যেমন বর্ষার পিছু পিছু শালুক আসে

আর বসন্ত এলেই পলাশ,

যেমন রাত হলে রজনীগন্ধা আর শরৎ এলেই কাশ।

ঠিক তেমনি সবার সাথে সবার সম্পর্ক গুলো।

 

কোন একটা যোগসূত্র ধরে জীবন নামক জীবন চলছে তো চলছে।

বাবার বাবা,তাঁর বাবা, তাঁর বাবা এভাবে।

এমন এক অদৃশ্য মায়ার বন্ধনে চলে আসছে জীবন বন্ধন।

আর এভাবে কয়েক আত্মা একত্রিত হয়ে আত্মীক বন্ধনে পরিনত হয়।

অথচ জীবনে লুকিয়ে থাকে এক হাস্যময় পরিনতি।আমরা কেউ কারও নই।

শুধু রিপু পরিচিত এক বন্ধন।

যে বন্ধনে কেউ কাউকে ছেড়ে চিন্তা করা কষ্টকর এক অসম্ভব ভাবনা।

ভাবনার নিজস্ব ঘরে কল্পনার রঙে নিজেকে রাঙাতে

কতটা যে ভার!

সে কথা কাকে বলি?

সবই মায়ার জাল, মায়ার জগৎ।

 

কবি পরিচিতি:-

সাম্পতিক কালের কবি পারুল রায় এর জন্ম ১৯৮৮ সালের ১২ই সেপ্টেম্বর কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার বালাটারী গ্রামে।বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে বর্তমানে গাইবান্ধায় স্বামী গৃহে।জীবনের প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় ১৭ বছর বয়সে পুন্ড্রবর্ধন সাহিত্য কল্যাণ পরিষদ, বগুড়ায়। এরপর ১টি একক,ও ৩টি যৌথ কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়।বর্তমানে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় নিয়মিত লিখছেন।

শেয়ার করুন :

কবিতাঃ- “মায়ার জগৎ” — পারুল রায়।

আপডেট সময় : ০৫:৩৮:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

মায়ার জগৎ 

—পারুল রায়

 

 

একদিন সবকিছু হারিয়ে ফেলার শেষে –

আমি হঠাৎই আবিষ্কার করবো,

পার্থিব কোনো কিছুর প্রতি

আমার আসলে কোনো কালেই কোনো মোহ নেই,

ছিল না আসক্তি।

 

আমার যা কিছু ছিল,

যা কিছু আছে,কিংবা থাকবে,

সবটা শুধু এক মায়ার জগৎ।

যার কোন শুরু নেই, শেষ নেই,

নেই হারানো বা ফুরিয়ে যাওয়ার মতো অন্তিম পরিণতি।

 

হৃৎপিণ্ড বিকল হওয়ার আগে পর্যন্ত যেন

এভাবেই আমি বুঝতে পারি।

আমার সমস্তটা জুড়ে কি আছে সেটাও জানা নেই।

ঠিক যেমন বর্ষার পিছু পিছু শালুক আসে

আর বসন্ত এলেই পলাশ,

যেমন রাত হলে রজনীগন্ধা আর শরৎ এলেই কাশ।

ঠিক তেমনি সবার সাথে সবার সম্পর্ক গুলো।

 

কোন একটা যোগসূত্র ধরে জীবন নামক জীবন চলছে তো চলছে।

বাবার বাবা,তাঁর বাবা, তাঁর বাবা এভাবে।

এমন এক অদৃশ্য মায়ার বন্ধনে চলে আসছে জীবন বন্ধন।

আর এভাবে কয়েক আত্মা একত্রিত হয়ে আত্মীক বন্ধনে পরিনত হয়।

অথচ জীবনে লুকিয়ে থাকে এক হাস্যময় পরিনতি।আমরা কেউ কারও নই।

শুধু রিপু পরিচিত এক বন্ধন।

যে বন্ধনে কেউ কাউকে ছেড়ে চিন্তা করা কষ্টকর এক অসম্ভব ভাবনা।

ভাবনার নিজস্ব ঘরে কল্পনার রঙে নিজেকে রাঙাতে

কতটা যে ভার!

সে কথা কাকে বলি?

সবই মায়ার জাল, মায়ার জগৎ।

 

কবি পরিচিতি:-

সাম্পতিক কালের কবি পারুল রায় এর জন্ম ১৯৮৮ সালের ১২ই সেপ্টেম্বর কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার বালাটারী গ্রামে।বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে বর্তমানে গাইবান্ধায় স্বামী গৃহে।জীবনের প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় ১৭ বছর বয়সে পুন্ড্রবর্ধন সাহিত্য কল্যাণ পরিষদ, বগুড়ায়। এরপর ১টি একক,ও ৩টি যৌথ কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়।বর্তমানে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় নিয়মিত লিখছেন।